অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতা-২০১৮

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম

২১শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস উপলক্ষে “অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতা-২০১৮”

প্রথম পুরষ্কার নগদ- ১০,০০০/=
দ্বিতীয় পুরষ্কার নগদ- ৮,০০০/=
তৃতীয় পুরষ্কার নগদ- ৬,০০০/=

প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের নিয়মাবলীঃ
========================

> প্রতিযোগিতায় যেকোনো বয়সের ও সকল শ্রেণী পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করতে পারবে।
> প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে সরাসরি এই লিংকে ভিজিট করুন।
> প্রতিযোগিতা ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ইং সকাল ১০টা থেকে ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ইং সকাল ১০টা পর্যন্ত চলবে।
> একজন প্রতিযোগী কেবলমাত্র একবারই অংশগ্রহণ করতে পারবে।
> সর্বাধিক সঠিক উত্তরদাতাদের মধ্য থেকে লটারীর মাধ্যমে পুরস্কারের জন্য বিজয়ী নির্বাচিত করা হবে।
> যেকোনো বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে।

***৫ জনকে আকর্ষণীয় বিশেষ পুরষ্কার দেয়া হবে***

আয়োজনেঃ বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী, ঢাকা মহানগরী উত্তর।

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কথা

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে ১৯৭১ সালে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে জন্ম নেয়া বাংলাদেশের স্বাধীনতা, ভূখণ্ডীয় সার্বভৌমত্ব ও ইসলামী মূল্যবোধ রক্ষার প্রতিজ্ঞা নিয়ে কাজ শুরু করে। সূচনা লগ্ন থেকে জামায়াতে ইসলামী আল্লাহর সন্তোষ অর্জন এবং পরকালীন মুক্তি পাওয়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশকে একটি ইসলামী কল্যাণ রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্যে আল্লাহ প্রদত্ত, রাসূল (সা) প্রদর্শিত বিধান মোতাবেক কাজ করে যাচ্ছে।

জামায়াতে ইসলামী অভ্যান্তরীণ শান্তি-শৃঙ্খলা নিশ্চিতকরণ ও বহিঃশক্তির হুমকি বা আক্রমন প্রতিহত করার লক্ষ্যে জাতীয় ঐক্য সুসংহত করণ ও ইসলামী মূল্যবোধ জাগ্রত করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ

মুহতারাম আমীর

মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন ১৯৭৫ সালের ১লা মার্চ সিলেটের বিয়ানীবাজার থানার আস্টগরী গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। মরহুম আব্দুল গফুর ও মারিয়াম বেগমের ছেলে মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন…

মুহতারাম মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তরের আমীর। তিনি ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য।

স্মরণীয় যারা

মরহুম অধ্যাপক গোলাম আযম

যদি অন্যায়ভাবে মৃত্যু দেয়া হয় তাহলে শহিদ হওয়ার গৌরব পাওয়া যায়। সে জন্য ইসলামী আন্দোলনের কর্মী হিসেবে শাহাদাত কামনা করি। সে জন্য ভয় কিসের? আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় করা তো জায়েজই না।মরহুম অধ্যাপক গোলাম আযম

শহীদ মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী

আমি শাহাদাতের মৃত্যু কামনা করি। শাহাদাতের মৃত্যু জীবনকে গৌরবান্বিত করে।শহীদ মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী

শহীদ আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ

ভয় করোনা, ফাঁসি হলেও ইসলামের জন্য আন্দোলন চলবে।শহীদ আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ

শহীদ আবদুল কাদের মোল্লা

আমার অপরাধ আমি ইসলামী আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছি। শুধু এ কারণেই এই সরকার আমাকে হত্যা করছে। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আমার এ মৃত্যু শহীদি মৃত্যু। এজন্য আমি গর্বিত।শহীদ আবদুল কাদের মোল্লা

শহীদ মীর কাসেম আলী

মৃত্যুকে ভয় করিনা, শহীদি মৃত্যুর জন্য নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করছি।শহীদ মীর কাসেম আলী

শহীদ মুহাম্মদ কামারুজ্জামান

আমি যে আদর্শের আন্দোলন করি, আমাকে মেরে ফেললেও সেই আদর্শ এই দেশে যুগ যুগ ধরে লালিত হবে এবং ইনশাআল্লাহ একদিন এদেশের মাটিতে ইসলাম বিজয়ী হবে।শহীদ মুহাম্মদ কামারুজ্জামান